পাসপোর্ট পেতে প্রয়োজনীয় সময়ঃ

দূতাবাস থেকে এমআরপি এনরোল করার পর তা ইমিগ্রেশন এন্ড পাসপোর্ট অধিদপ্তর, ঢাকা হতে প্রিন্ট হয়ে কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে দূতাবাসে পৌছে। দূতাবাস থেকে এমআরপি এনরোল করার পর তা প্রিন্ট হয়ে দূতাবাসে পৌছঁতে সাধারনত এক মাস সময় প্রয়োজন হয়। পাসপোর্ট দূতাবাসে পৌছাঁনোর পর তার একটি তালিকা দূতাবাসের ফেইসবুক এ্যাকাউন্ট (facebook.com/bangladeshembassycairo) এবং ওয়েবসাইটে (www.bangladeshembassycairo.org) আপলোড করা হয়। উক্ত ফেইসবুক এ্যাকাউন্ট বা ওয়েবসাইট থেকে সংশ্লিষ্ট আবেদনকারীগণ তাদের পাসপোর্টের তথ্য সংগ্রহ করে কাঙ্খিত পাসপোর্ট দূতাবাস থেকে গ্রহণ করতে পারেন।

যে সকল কারনে পাসপের্ট পেতে দেরি হয়:

১। পুলিশ প্রতিবেদন বিলম্বে আসলে।
২। জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্মসনদের তথ্য যদি অন্য কারো সাথে মিলে যায় তাহলে উক্ত পাসপোর্ট Demographic Reject হয়। এরকম ক্ষেত্রে পাসপোর্ট প্রাপ্তিতে বিলম্ব হয়।
৩। একই ব্যক্তি যদি একাধিকবার পাসপোর্টের জন্য আবেদন করেন/পূর্বের এমআরপি করার সময় Finger print-এ কোন সমস্যা থাকলে পরবর্তীতে এমআরপি রিইস্যুর সময় AFIS (Automated Fingerprint Identification System) জনিত কারনে পাসপোর্ট পেতে বিলম্ব হয়।
৪। বর্তমান পাসপোর্ট গোপন করে এবং ব্যক্তিগত তথ্য পরিবর্তন করে নতুনভাবে পাসপোর্টের জন্য আবেদন করলে উক্ত আবেদনকারীর আবেদন বাতিল হয়ে যায়।
৫। কারিগরি কারনে প্রিন্ট মেশিনে, নেটওয়ার্ক, সফটওয়্যার, সার্ভার ইত্যাদি সমস্যার কারনে অনেক সময় পাসপোর্ট পেতে বিলম্ব হয়। কখনও কখনও পাসপোর্ট QC Pass হতে ব্যর্থ হয়, এক্ষেত্রে পাসপোর্ট পুরনায় প্রিন্ট করতে হয়। এরকম ক্ষেত্রে পাসপোর্ট পেতে বিলম্ব হয়।